More

    চীনকে কড়া হুঁশিয়ারি দিল ভারত

    প্রভাতি সংবাদ ডেস্ক:

    ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অরুণাচলে চীনের সেনাবাহিনীর অনুপ্রবেশের ঘটনায় বেইজিংকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে নয়াদিল্লি। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চীনের এ ধরণের কর্মকান্ড আমরা কখনোই মেনে নেব না।

    মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বলেন, অরুণাচল সীমান্তে গত বেশ কয়েক বছর যাবত নির্মাণকাজ চালিয়ে যাচ্ছে চীন। এরই মধ্যে ভারতীয় সীমান্তের কিছু এলাকা তারা দখল করছে এবং সেসবকে নিজেদের বলে দাবি করেছে।

    তার ভাষায়, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পরিষ্কারভাবে চীনের ক্ষমতাসীন সরকারকে জানাচ্ছে যে- এ ধরনের অবৈধ কার্যক্রম নয়াদিল্লি কখনো মেনে নেবে না। এছাড়া অরুণাচল সীমান্তের যেসব এলাকা চীনের সেনাবাহিনী নিজেদের বলে দাবি করছে, সেগুলো আসলে আমাদের। তাই ভবিষ্যতে কোনো প্রকার ভিত্তিহীন দাবি না করার জন্য চীনের সরকারকে আহ্বান জানাচ্ছে ভারত।

    বিশ্লেষকদের মতে, ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় পার্বত্য প্রদেশ অরুণাচলের সঙ্গে প্রতিবেশী রাষ্ট্র চীনের সীমান্ত রয়েছে। গত বছরের শেষ দিকে ভারতীয় মিডিয়া এনডিটিভিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, অরুণাচলের একটি দুর্গম এলাকা দখল করে গ্রাম বানিয়েছে চীন। সেই গ্রামে অন্তত ১০০টি বাড়ি বা আবাসিক ভবন রয়েছে।

    মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিরক্ষা বিভাগ সম্প্রতি প্রতিবেদন প্রকাশের মাধ্যমে জানিয়েছিল, অরুণাচলের সেই গ্রাম ও তার আশপাশের এলাকায় সামরিক বাাহিনীর সদস্য ও সরঞ্জামের মজুত বাড়াচ্ছে চীন।

    প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, এবার যে অঞ্চলে চীন গ্রামটি তৈরি করেছে, সেটি একটি বিতর্কিত এলাকা। কেননা এলাকাটির কিছু অংশ চীনের স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল তিব্বতের এবং বাকি অংশের প্রকৃত অধিকারী ভারত। সীমান্ত নির্ধারণ আইন বা লাইন অব অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল (এলএসি) লঙ্ঘন করে সেখানে গ্রাম বানিয়েছে বেইজিং।

    যার প্রেক্ষিতে এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসে সেই প্রতিবেদন জমা দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

    এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়, সীমান্তবর্তী চীনা গ্রামটি অরুণাচল প্রদেশের সুবানশিরি জেলায় সারি চু নদীর তীরে অবস্থিত। ওই এলাকায় অবশ্য বেশ কয়েক বছর যাবত একটি ছোট সৈন্য ছাউনি ছিল চীনের। সে সময় ভারতও তাতে কোনো আপত্তি জানায়নি।

    যদিও সামরিক বাহিনীর ছাউনির আশপাশের এলাকায় একটি পুরাদস্তুর গ্রাম তৈরি করেছে চীন- এই সংবাদটি যখন ২০২০ সালে প্রকাশিত হলো- তখন ব্যাপারটিকে আমল দিতে বাধ্য হয়েছে ভারত।

    একই বছর ভূস্বর্গ খ্যাত উপত্যকা জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখ অঞ্চলে গালাওয়ান উপত্যকায়ও সীমান্ত নিয়ে বিরোধের জেরে সংঘাতে জড়িয়েছে চীন ও ভারতের সেনাবাহিনী। মূলত সেখানে দুপক্ষেই হতাহত হয়েছেন শতাধিক।

    উল্লেখ্য, গত বছর থেকেই সীমান্ত নিয়ে প্রতিবেশী দেশ দুটির মধ্যে তিক্ততা চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। যা এখনো বিদ্যমান।

    © এই নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
    / month
    placeholder text

    সর্বশেষ

    রাজনীাত

    বিএনপি চেয়ারপারসনের জন্য বিদেশে হাসপাতাল খোজা হচ্ছে

    প্রভাতী সংবাদ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্যে আবেদন করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা মনে করেন আবেদনে সরকারের দিক থেকে ইতিবাচক...

    আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

    আরো পড়ুন

    Leave a reply

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    spot_imgspot_img