More

    মগবাজার ট্রাজেডি: হৃদয় বিদারক বর্ণনা স্বজনের

    প্রভাতী বার্তাকক্ষ:

    মগবাজার ট্রাজেডি নিয়ে এখন পর্যন্ত সঠিক কারণ ব্যাখ্যা করতে পারেনি সরকারি কোন কর্তৃপক্ষ। তবে পাওয়া যাচ্ছে প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্য।

    মগবাজারে বিস্ফোরণের পর থেকেই স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছিলেন একটি ফার্মেসির কর্মচারী মোঃ সুজন।

    কারণ তিনি জানতেন, সেখানকার শর্মা হাউজে নয় মাসের মেয়ে আর ১৩ বছরের ভাইকে নিয়ে শর্মা খেতে গিয়েছিলেন তার স্ত্রী জান্নাত বেগম।

    বিস্ফোরণের পরপর তিনি মগবাজারের কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে মেয়ে সুবহানার লাশ পান।

    এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এসে পান স্ত্রীর মৃতদেহ। তার শ্যালক আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

    রবিবার রাতে মোঃ সুজন সাংবাদিকদের বলেন, ”আমার সব শেষ হয়ে গেল, আর কিছুই রইল না। আমার বেঁচে থেকে আর কি হবে?’

    মগবাজারের বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে ঢাকার বেশ কয়েকটি হাসপাতাল আহাজারিতে ভরে ওঠে।

    কেউ কেউ তাদের স্বজনদের খোঁজ করছিলেন, আবার কেউ আহত বা নিহত স্বজনদের পেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছিলেন।

    © এই নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
    / month
    placeholder text

    সর্বশেষ

    রাজনীাত

    বিএনপি চেয়ারপারসনের জন্য বিদেশে হাসপাতাল খোজা হচ্ছে

    প্রভাতী সংবাদ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্যে আবেদন করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা মনে করেন আবেদনে সরকারের দিক থেকে ইতিবাচক...

    আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

    আরো পড়ুন

    Leave a reply

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    spot_imgspot_img