More

    কোভিড এবং মহিলাদের অনিয়মিত মাসিকচক্র

    প্রভাতী সংবাদ ডেস্ক:

    একটি নতুন মার্কিন গবেষণায় দেখা গেছে, যেসব মহিলা মহামারীকালীন উচ্চমাত্রার চাপের সম্মুখীন হয়েছেন, তাদের নিয়মিত মাসিকচক্রের চেয়ে বেশি সময় বা বেশি রক্তপাতের মতো সমস্যা দেখা দেয়ার সম্ভাবনা বেশি। গবেষণায় লক্ষ লক্ষ মহিলার মাসিকচক্র ব্যাহত হওয়ার পেছনে কোভিড-সম্পর্কিত চাপকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

    যুুক্তরাষ্ট্রে ২১০ জন মহিলার ওপর একটি জরিপ চালানো হয়। জরিপে দেখা গেছে যে ২০২০ সালের জুলাই এবং আগস্ট এর মধ্যে ৫৪% মহিলা তাদের মাসিকচক্রে পরিবর্তন লক্ষ্য করেছে।

    জরিপে অংশগ্রহণকারী নারীদের অর্ধেক দীর্ঘ সময় এবং মাত্র এক-তৃতীয়াংশের বেশি নারী স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক মাত্রায় রক্তপাতের কথা বলেছেন। এছাড়া মাসিক পূর্ববর্তী উপসর্গে পরিবর্তনের বিষয়টিও উঠে এসেছে।

    যাদের ওপর জরিপ চালানো হয় তাদেরকে অনলাইনে দেয়া প্রশ্নপত্রের মাধ্যমে কোভিড মহামারীর আগে এবং চলাকালীন চাপের মাত্রা পরিমাপ করতে বলা হয়।

    কোভিড মহামারী চলাকালীন মহিলারা আগের তুলনায় উচ্চমাত্রার মানসিক চাপের কথা জানিয়েছেন। নর্থওয়েস্টার্র্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞরা এই গবেষণা-কার্যটি পরিচালনা করেন।

    তারা এ মর্মে সতর্ক করেন যে মহামারীজনিত মানসিক চাপ মাসিকচক্রজনিত এই পরিবর্তনের জন্য দায়ী হতে পারে। এই জরিপের স্টাডি অথর প্রফেসর নিকোল ওয়াইটোভিচ বলেন, ‘আমরা জানি অতিরিক্ত চাপ আমাদের সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতার উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।’

    তিনি আরও বলেন যে ‘মানসিক চাপ স্বাভাবিক মাসিক চক্রের প্যাটার্ন এবং সামগ্রিক প্রজনন স্বাস্থ্যকেও ব্যাহত করতে পারে’। টিকা দেয়ার পর হাজার হাজার মহিলা মাসিক চক্র ব্যাহত হওয়ার অভিযোগ করেছেন যদিও জরিপকৃত মহিলাদের কেউই জরিপের সময় কোভিড টিকাপ্রাপ্ত ছিলেন না।

    প্রফেসর ওয়াইটোভিচ বলেন, জার্নাল অব উইমেন্স হেলথ -এ প্রকাশিত মানসিক চাপের ফলাফলগুলি মহামারী চলাকালীন মহিলাদের মাসিকচক্র ব্যাহত হওয়ার অনেক অকল্পনীয় বিবরণীকে নিশ্চিত করেছে।

    তিনি আরও বলেন যে কোভিড সংক্রমণ এবং সেইসাথে ভাইরাসের বিরুদ্ধে টিকা দেয়ার কারণে মহিলারা এখন অনিয়মিত মাসিক চক্রের সম্মুখীন হচ্ছেন। প্রজনন স্বাস্থ্যের উপর মহামারীর প্রভাব উপেক্ষা করা উচিত নয়।

    যুক্তরাজ্য সরকারের ওষুধ ও স্বাস্থ্যসেবা পণ্য নিয়ন্ত্রক সংস্থাা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়গুলো নজরদারিতে রাখে। এই সংস্থা ভ্যাকসিন পাওয়ার পর মহিলাদের ৩৫,৭০৭ টি ঋতুচক্রজনিত সমস্যা রেকর্ড করেছে।

    বিশেষজ্ঞরা এই সংখ্যাকে হিমবাহের অগ্রভাগের সাথে তুলনা করে আশঙ্কা করছেন যে অনেক মহিলা যারা পরিবর্তনগুলি অনুভব করেছেন তারা সম্ভবত কোনো রিপোর্টই করেননি।

    কোভিড ভ্যাকসিন পাওয়ার পর মাসিকচক্র সম্পর্কিত যেসব সমস্যা রিপোর্ট করা হয়েছে সেগুলো হলো প্রচুর রক্তপাত, অনিয়মিত মাসিক স্রাব, এবং পিরিয়ড স্বাভাবিকের চেয়ে আগে বা পরে হওয়া।

    কিছু সংখ্যক পোস্টমেনোপজাল মহিলারা জানিয়েছেন টিকা দেয়ার পরে তাদের যোনিপথ থেকে রক্তক্ষরণ হয়েছে। তবে যুক্তরাজ্যের মেডিকেল রেগুলেটর কোভিড ভ্যাক্সিন নেয়ার কারণে মহিলাদের ব্যাহত মাসিকচক্রের বিষয়টি গ্রহণ বা অস্বীকার না করে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটিকে প্রকৃতিগতভাবে ক্ষণস্থায়ী’ বলে উল্লেখ করেছে।

    যাইহোক, প্রতিবেদনগুলি এটা প্রমাণ করে না যে এই পরিবর্তনের জন্য টিকাই দায়ী ছিল। শীর্ষস্থানীয় চিকিৎসকগণ জোর দিয়ে বলেন যে কোভিড ভ্যাকসিনের প্রজনন ক্ষমতাকে প্রভাবিত করার কোনো প্রমাণ নেই।

    © এই নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
    / month
    placeholder text

    সর্বশেষ

    রাজনীাত

    বিএনপি চেয়ারপারসনের জন্য বিদেশে হাসপাতাল খোজা হচ্ছে

    প্রভাতী সংবাদ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্যে আবেদন করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা মনে করেন আবেদনে সরকারের দিক থেকে ইতিবাচক...

    আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

    আরো পড়ুন

    Leave a reply

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    spot_imgspot_img