গরু বিক্রির পর ঋণ সামলাতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন ভাড়া!

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ৮টি বড় জাতের সরকারি গরু নিলামে বিক্রি করে তারা। গরু বিক্রি করে ২৩ লাখ রুপি সংগ্রহ করেছিলেন ইমরান খান। এছাড়া সরকারের দামি ও বিলাসবহুল ৬১টি গাড়ি নিলামে তোলা হয়ে। গাড়ি বিক্রি করে তারা আরও ২০ কোটি রুপি সংগ্রহ করেছিলেন ।

প্রভাতী বার্তাকক্ষঃ

পাকিস্তান সরকারের বৈদেশিক ঋণ শোধ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকারি বাসভবন ভাড়া দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর আগে ঋণ শোধ দেয়ার জন্য গরু, গাড়ি বিক্রি করেছিল ইমরান খান।

ঋণের বোঝায় হিমশিম খাচ্ছে পাকিস্তান। গত তিন বছর ধরে দেশটির মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে। ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর দেশটির জিডিপি কমে গেছে অন্তত ১৯ বিলিয়ন ডলার। ফলে বৈদেশিক ঋণ পরিশোধ করতে হিমশিম খাচ্ছে ইসলামাবাদ। এমতাবস্থায় ঋণ শোধে গরু, গাড়ি বিক্রির পর এবার সরকারি বাড়ি ভাড়া দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাকিস্তানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত খবরে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান যে বিশাল বাসভবনে থাকতেন সেটার ব্যয়ভার বহন করা পাকিস্তান সরকারের জন্য অনেক কঠিন হয়ে পড়ে। তাই ব্যায়ভার সামাল দিতে ২০১৯ সালে সরকারি এ বাড়ি ছেড়ে দেন ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনকে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর করার প্রস্তাব উঠেছিল সে সময় । তবে যেকোন কারণে ওই প্রস্তাব আর বাস্তবায়ন করা হয়নি। এবার ইমরান খান নিজেই বাসভবন ভাড়া দেয়ার মত নতুন প্রস্তাব দিলেন।

এখন থেকে যে কেউ চাইলে নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে প্রধানমন্ত্রীর এ বিশাল সরকারি বাসভবন ভাড়া নিতে পারবে। ভাড়া বাবদ টাকা খরচ করলে বিয়ে, জন্মদিন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ফ্যাশন শো, শিক্ষা বা ধর্মীয় সংক্রান্ত অনুষ্ঠান আয়োজন করা যাবে এ বাড়িতে। এমন খবর দিয়েছেন সামা টিভি।

জিও টিভির একটি প্রতিবেদনে জানা গেছে,সরকারি বাসভবন ভাড়া দেওয়ার পক্ষে ইমরান খান একটি যুক্তি দিয়েছেন। তার মতে ব্রিটেনের রাজপ্রাসাদের কিছু অংশে টিকিট কেটে প্রবেশের জন্য দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত। ঠিক এভাবেই ইসলামামাবাদে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনও নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে সর্বসাধারণের কাছে ভাড়া দেওয়া যেতে পারে।

তবে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এখানে দ্বিমত পোষন করছেন। তারা বলছেন, ইসলামাবাদের রেড জোনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন । এমতাবস্থায় গোটা বাসভবনে বিয়ে, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ইত্যাদি আয়োজন করা হলে পুরো রেড জোনও মানুষের জন্য অনিরাপদ হয়ে পড়ে। এছাড়া পার্শ্ববর্তী দেশ আফগানিস্তানের পরিস্থিতি ভালনা, সেখানে প্রতিনিয়ন লড়াই চলছে । এসময় ইসলামাবাদের মত এমন গুরুত্বপূর্ণ এলাকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বাসভবনটি সর্বসাধারণের ব্যবহারের জন্য খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত একেবারেই অনুচিত।

উল্লেখ্য, পাকিস্তান বর্তমানে বিশাল অঙ্কের বৈদেশিক ঋণের দায়ে জর্জরিত। চীন, সৌদি আরবসহ অন্যান্য মিত্র এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে নেওয়া ঋণ এই মুহুর্তে পরিশোধে হিমশিম খাচ্ছে দেশটি।

এ ঋণের বোঝা কিছুটা কমাতে নানাভাবে অর্থ সংগ্রহ করছে পাকিস্তান সরকার। এর আগে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ৮টি বড় জাতের সরকারি গরু নিলামে বিক্রি করে তারা। গরু বিক্রি করে ২৩ লাখ রুপি সংগ্রহ করেছিলেন ইমরান খান। এছাড়া সরকারের দামি ও বিলাসবহুল ৬১টি গাড়ি নিলামে তোলা হয়ে। গাড়ি বিক্রি করে তারা আরও ২০ কোটি রুপি সংগ্রহ করেছিলেন ।

পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় ব্যাংকের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, ২০২১ সালের জুন মাস শেষে দেশটির মোট ঋণ ও দায়ের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৪৫.৪৭০ ট্রিলিয়ন রুপি। এই দেনা শোধ দেয়ার সক্ষমতা তাদের নেই।

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here