More

    বেনাপোল দিয়ে ভারত থেকে রেলপথে পণ্য আমদানির রেকর্ড

    নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

    ২০১৯-২০ অর্থবছরে বেনাপোল বন্দরে রেলপথে ভারত থেকে এক লাখ ৮৪ হাজার ৭৩ দশমিক ৯ মেট্রিকটন পণ্য আমদানি হয়েছে । সেখানে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছিল ৮ কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

    বেনাপোল বন্দর দিয়ে স্থলপথের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রেলেপথেও বেড়েছে ভারত থেকে পণ্য আমদানি। গত ২০২০-২১ অর্থ বছরে রেলপথে ভারত থেকে আমদানি হয়েছে ৫ লাখ ৪০ হাজার ৬৫৯ মেট্রিকটন বিভিন্ন ধরনের পণ্য। এ সময় রেল ভাড়া বাবদ সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩১ কোটি ৪০ লাখ ৭৯ হাজার ৬৩০ টাকা।

    পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৯-২০ অর্থবছরে বেনাপোল বন্দরে রেলপথে ভারত থেকে এক লাখ ৮৪ হাজার ৭৩ দশমিক ৯ মেট্রিকটন পণ্য আমদানি হয়েছে । সেখানে সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছিল ৮ কোটি ৮৮ লাখ ২৬ হাজার টাকা। বেনাপোল রেল স্টেশন মাস্টার সাইদুজ্জামান, রেলপথে আমদানি ও রাজস্ব ইনকামের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

    বেনাপোল বন্দরের আমদানি-রপ্তানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক জানান, স্থলপথে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভারতের বনগাঁর কালিকতা ট্রাক পার্কিং সিন্ডিকেটের কাছে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা জিম্মী হয়ে পড়েছিল।

    বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে সিরিয়ালের নামে ট্রাক প্রতি অন্তত ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা আদায় করা হতো। করোনাকালীন সময়ে তাদের দৌরাত্ব আরও বেড়ে যায়।

    ফলশ্রুতিতে আমদানি খরচ বেড়ে যাওয়ায় দেশীয় বাজারে জোরেসোরে তার প্রভাব পড়ে। পরবর্তীতে গত বছরের ৪ জুন থেকে সরকারের পক্ষ থেকে রেলপথে সব ধরনের পণ্যের আমদানি বাণিজ্যের অনুমতি দেয়া হয়।

    সাশ্রয়ী আর নিরাপদ হওয়ায় ব্যবসায়ীরা রেলপথ বাণিজ্যে আগ্রহী হতে থাকে থাকে। বর্তমানে প্রতিদিন কার্গো রেল, সাইডোর কার্গো রেল এবং প্যার্সেলভ্যানের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের পণ্য আমদানি হচ্ছে। কিন্তু এর আগে মাসে মাত্র ৪ থেকে ৫টি ওয়াগানে পণ্য আমদানি হতো। এতে ব্যবসায়ীদের মুনাফা অর্জন হচ্ছে, পাশাপাশি সরকারও রাজস্ব পাচ্ছে।

    বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, এতোদিন ধরে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ভারতীয় ট্রাক পার্কিং সিন্ডিকেটের কাছে জিম্মি হয়েছিল। এখন ব্যবসায়ীরা অনেকটা সিন্ডিকেট মুক্ত বলে তিনি জানান।

    রেলপথে সব ধরনের পণ্য আমদানি সচল রয়েছে

    বর্তমানে রেলপথে সব ধরনের পণ্য আমদানি সচল রয়েছে বলে তিনি জানান। এতে গত বছরের তুলনায় এ বছর আমদানি বেড়েছে। পাশাপাশি রেলখাত থেকে চার গুণ বেশি রাজস্ব আদায় করেছে সরকার।

    বেনাপোল কাস্টম হাউজের কমিশনার আজিজুর রহমান বলেন, কন্টেইনারের মাধ্যমে আমদানি বাণিজ্য শুরু হয়েছে। এতে বাণিজ্য সম্প্রসারণে নতুন পথের সূচনা হয়েছে। ব্যবসায়ীদের সময় ও আমদানি খরচ কমেছে। পাশাপাশি নিরাপত্তাও বেড়েছে। ভারত থেকে স্থলপথের পাশাপাশি রেলযোগে মালামাল আমদানি বৃদ্ধি পেলে দেশের রেলখাতও উন্নয়ন হবে। রেলে ভারতে পণ্য রপ্তানির বিষয়টি কর্তৃপক্ষের বিবেচনায় রয়েছে।

    রেলওয়ের বেনাপোল স্টেশন মাস্টার শাহিদুজ্জামান জানান, বর্তমানে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে স্থলপথের পাশাপাশি রেলপথেও প্রচুর পণ্য আমদানি হচ্ছে। তবে বন্দরের রেল ইয়ার্ড না থাকায় পণ্য রাখতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।

    বন্দরে দুটি রেল ইয়ার্ড নির্মাণের কাজ শুরু করেছে কতৃপক্ষ । চলছে বেনাপোল থেকে পেট্রাপোল পর্যন্ত ব্রডগেজ লাইনের সম্প্রসারণ কাজ। এসব কাজ শেষ হলে এ পথে বাণিজ্য আরও বাড়বে।

    আগে শুধুমাত্র রেলপথে পাথর ও জিপসাম জাতীয় পণ্য আমদানি হতো। তবে বর্তমানে গার্মেন্টস, কেমিক্যাল ও খাদ্যদ্রবসহ সব ধরনের পণ্য আসছে।

    বেনাপোল বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে পদক্ষেপ

    করোনাকালীন সময়ে রেলপথে আমদানি বাণিজ্যের চাহিদা বেড়েছে। একারণে চলতি মাসে অবকাঠামো উন্নয়ন করার জন্য কাজ শুরু করেছে রেল বিভাগ।

    বেনাপোল রেলস্টেশন থেকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর পর্যন্ত রেল সড়কে চলছে ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সংস্কার ও ডাবল রেললাইন স্থাপনের কাজ। রেলপথে আমদানির চাহিদা বাড়লেও ব্রিটিশ আমলের সংকীর্ণ আর জরাজীর্ণ রেলপথে মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছিল বাণিজ্যিক কার্যক্রম।

    ব্যবসায়ীরা বলছেন, রেলের অবকাঠামো উন্নয়নের পাশাপাশি কন্টেইনার টার্মিনাল স্থাপন হলে ভারতের সাথে আমদানি বাণিজ্য যেমন বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে তেমনি বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনা সংক্রমণ ঝুঁকি কমবে।

    রেল বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেশী দেশ ভারতের সাথে বাংলাদেশের ১২টি বন্দর দিয়ে রেল ও স্থলপথে আমদানি, রপ্তানি বাণিজ্য হয়ে থাকে।

    তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়াতে একমাত্র বেনাপোল বন্দর দিয়েই স্থল এবং রেলপথে আমদানি বাণিজ্য ও পাসপোর্টধারী যাত্রী যাতায়াত হয়।

    ফলে এ বন্দরের গুরুত্ব অন্যান্য বন্দরের চাইতে বেশি। সড়কপথে বাণিজ্যের ক্ষেত্রে কিছুটা অবকাঠামো উন্নয়ন হলেও ব্রিটিশ আমলে স্থাপন হয় এ রেলপথ। দেশভাগের পর বন্ধ হয়ে যায় রেলের কার্যক্রম।

    © এই নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
    / month
    placeholder text

    সর্বশেষ

    রাজনীাত

    বিএনপি চেয়ারপারসনের জন্য বিদেশে হাসপাতাল খোজা হচ্ছে

    প্রভাতী সংবাদ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার জন্যে আবেদন করা হয়েছে। খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা মনে করেন আবেদনে সরকারের দিক থেকে ইতিবাচক...

    আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ

    আরো পড়ুন

    Leave a reply

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    spot_imgspot_img