করোনায় মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা প্রকাশ নিয়ে লুকোচুরির অভিযোগ বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

প্রতিদিন করোনায় মারা যাওয়া সংখ্যা সরকার সঠিকভাবে প্রকাশ করছেনা এমন অভিযোগ করেছে বিএনপি।সরকার করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যুর প্রকৃত সংখ্যা সঠিকভাবে প্রকাশ করছেনা বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, সরকার করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যার প্রকৃত চিত্র না দিয়ে মিথ্যা ও অসত্য তথ্য দিচ্ছে।

রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ফখরুল।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, হাসপাতালে সংবাদকর্মীদের তথ্য সংগ্রহ করতে গেলেও বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে মামলার ভয়ে অনেক সাংবাদিক করোনার প্রকৃত তথ্য তুলে ধরতে পারছেন না।

সারাদেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় সার্বিক পরিস্থিতি আরও জটিল আকার ধারণ করেছে উল্লেখ করে ফখরুল অবিলম্বে এই সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য সরকারকে কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, করোনার ভারতীয় ডেল্টা ভেরিয়েন্ট সারা দেশে মারাত্মকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিন সংক্রমিতের সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা আশংকাজনক হারে বৃদ্ধি পেয়ে রেকর্ড ছাড়াচ্ছে।

এসময় মির্জা ফখরুল অভিযোগ করেন, হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা আর সরকারের স্বদিচ্ছার কারণে মানুষ ঠিকমত করোনা টেস্ট করাতে পারছেনা।

তিনি বলেন, মানুষ করোনা পরীক্ষার জন্য প্রতিদিন জেলা হাসপাতাল ও পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে ভিড় করছে। অথচ সরকারের অব্যপস্থাপনার কারণে এদের বেশিরভাগ মানুষ আক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও টেস্ট করাতে পারছে না।

সঠিক চিকিৎসা না পেয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরে ঘুরে করোনা রোগীর মৃত্যু হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলেন ফখরুল। তিনি বলেন, সরকার জেলা হাসপাতালগুলোর সার্বিক পরিস্থিতি উন্নয়ন করার কোনো প্রচেষ্টা গ্রহণ করছেনা। অন্যদিকে ঢাকায় কোভিড ডেডিকেটেড হাসপাতালগুলোতে অতিরিক্ত রোগীর চাপে হিমশিম খেতে হচ্ছে, দেখা দিচ্ছে চরম অব্যবস্থপনা।

বিএনপি মহাসচিব দাবি করেন, করোনার শুরু থেকেই স্বাস্থ্য অধিদফতর করোনা টেস্ট করানোর ক্ষেত্রে চূড়ান্তভাবে ব্যর্থ হয়েছে।তিনি বলেন, দেশের মানুষ করোনা সংক্রান্ত সঠিক তথ্য পাচ্ছে না। অন্যদিকে আক্রান্ত ব্যক্তিরা হাসপাতালে কোনো বেড পাচ্ছে না। যারা জটিল রোগী ও করোনার কারনে প্রচন্ড শ্বাসকষ্টে ভুগছেন তার অক্সিজেন-আইসিইউ বেড পাচ্ছে না।

মির্জা ফখরুল বলেন, সব নাগরিককে টিকা সুবিধা নিশ্চিত করার জন্য সরকার প্রয়োজনীয় সংখ্যক টিকা সংগ্রহ করতে পারেনি।সরকার টিকা সংরক্ষণ ও বিতরণের সুনির্দিষ্ট রোড ম্যাপ এখন পর্যন্ত জনগণের সামনে উপস্থাপন করতে পারেনি।

তিনি বলেন, অবলীলায় ভুল তথ্য দেয়ার কারনে সরকারের কাছে জনগণ প্রতারিত হচ্ছে। সরকার বলছে, প্রতি সপ্তাহে ৬০ লাখ টিকা পাবে মানুষ অথচ সরকার গত ৭ মাসেও ৬০ লাখ টিকা দিতে পারেনি ।

টিকা প্রাপ্তির কোনো নিশ্চয়তা নেই অথচ সরকার প্রতি মাসে ১ কোটি টিকা প্রদানের ঘোষণা দিয়েছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এটা জনগণের সঙ্গে একপ্রকার প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়।

প্রতি মাসে কোন উৎস থেকে ১ কোটি টিকা আসবে এখন পর্যন্ত সরকার সেটা জানাতে পারেনি। স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নানা উক্তি এখন মানুষের কাছে হাস্যকর হয়ে গেছে। এগুলো যে ফাঁকা বুলি মানুসের সেটা বুঝতে আর বাকি নেই।

Leave a reply

Please enter your comment!
Please enter your name here